রেসপেক্ট সিনিয়র কেয়ার রাইডার: 9152007550 (মিসড কল)

সেলস: 1800-209-0144 সার্ভিস চ্যাট: +91 75072 45858

ইংরেজি

Claim Assistance
Get In Touch
Travelling in COVID-19 Times
ডিসেম্বর 14, 2021

কোভিড-19-এর সময়ে ভ্রমণ করার সময় যে বিষয়গুলি মনে রাখতে হবে

সেই সময়ের কথা মনে নিশ্চয়ই মনে পড়ে যখন ভ্রমণ করা অনেক সহজ ছিল. আমরা ছুটির সময়ে পরিবার এবং বন্ধুদের সাথে ঘুরতে যাওয়ার প্ল্যান করতাম. দিনগুলি কত আনন্দময় ছিল! মানুষ ধীরে ধীরে আবার ভ্রমণ করা শুরু করছে. তবুও, ভ্রমণ এখন আর মহামারীর আগের মতো অবস্থায় নেই. কোভিড-19-এর সময়ে ভ্রমণ করা ঝুঁকিপূর্ণ এবং বিশ্বের অনেক জায়গায় ভ্রমণ করা এখনও জটিল রয়ে গেছে. একটি ঝঞ্ঝাট-মুক্ত ট্রিপ আমরা সকলেই চাই. তবে, কিছু কিছু সমস্যা সৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে. উদাহরণস্বরূপ, লাগেজ হারিয়ে যেতে পারে, ফ্লাইট বিলম্বিত হওয়ার ফলে ট্রানজিট ফ্লাইট মিস হতে পারে. এই ধরনের যে কোনও ঘটনা শারীরিক, মানসিক এবং আর্থিকভাবে প্রভাবিত করতে পারে. সুতরাং, অবশ্যই আপনার যাত্রা শুরু করার সময়ে সাথে রাখুন একটি ট্রাভেল ইনস্যুরেন্স.

ট্রাভেল ইনস্যুরেন্স কেন দরকার?

আপনি দেশে বা বিদেশে যেকোনও জায়গাতেই ভ্রমণ করতে পারেন. ট্রাভেল ইনস্যুরেন্স ভ্রমণের সময় সম্মুখীন হওয়া যে কোনও পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে সাহায্য করে. ভ্রমণের ক্ষেত্রে প্রত্যেক ব্যক্তির প্রয়োজনীয়তা ভিন্ন ভিন্ন হয়. এবং বিশ্বব্যাপী চলমান সংকটের সময় নিরাপদে ভ্রমণ করা আমাদের সকলের জন্য অগ্রাধিকার হওয়া উচিত. সঠিক ট্রাভেল ইনস্যুরেন্স কভারেজ বেছে নেওয়া হলে তা কোনও দুশ্চিন্তা ছাড়াই ভ্রমণ উপভোগ করতে সহায়তা করবে.

কোভিড-19 এর সময়ে ভ্রমণ করা কি নিরাপদ?

সহজভাবে বলতে গেলে, কোভিড-19-এর সময়ে ভ্রমণ করার ক্ষেত্রে অনেক ঝুঁকি রয়েছে. তবে, আমাদের এর উপায়ও খুঁজে বের করতে হবে. আপনি যে গন্তব্যে যেতে চান সেখানে কোভিড-19-এর সংক্রমণ আছে কিনা তা নিশ্চিত হয়ে নিন. যদি আপনি বা আপনার পরিবারের সদস্যরা ভ্যাকসিন না নিয়ে থাকেন তাহলে ভ্রমণ করবেন না. বিশেষ করে, যদি আপনার পরিবারে কোনও বয়স্ক ব্যক্তি থাকেন যিনি ভ্যাকসিন নেননি, তাহলে তাঁর অসুস্থ হওয়ার ঝুঁকি সবচেয়ে বেশি. বর্তমান সময়ে সবচেয়ে বুদ্ধিমানের কাজ হল, ভ্যাকসিন না নিলে কোথাও ঘুরতে যাওয়া যাবে না. তবে, একজন দায়িত্বশীল নাগরিক হিসাবে, নিজের এবং অন্যান্যদের নিরাপত্তার জন্য কোভিড শট নেওয়া ভালো. মনে রাখবেন, আমরা সকলেই এই পরিস্থিতিতে একসাথে আছি.

আমি ভ্যাকসিনের সবগুলো ডোজ নিয়েছি. আমার পক্ষে কি ভ্রমণ করা নিরাপদ?

ভ্রমণের সময় সমাজের বিভিন্ন মানুষের সংস্পর্শে আসতে হয়. একজন ব্যক্তি যিনি ভ্য়াকসিনের সবগুলো ডোজ নিয়েছেন, তাঁকে এখনও সাবধান থাকতে হবে. ভ্যাকসিনের সবগুলো ডোজ নিলে গুরুতরভাবে অসুস্থ হওয়ার এবং অন্যদের মধ্যে ভাইরাস ছড়ানোর ঝুঁকি উল্লেখযোগ্যভাবে হ্রাস পায়. ভ্রমণ করার আগে, আপনার গন্তব্যে কোভিড-19 সম্পর্কিত নিয়মাবলী বিষয়ক পরামর্শ দেখে নিন. এখানে, আমরা কিছু সতর্কতা সম্পর্কে উল্লেখ করছি যা নিরাপদে ভ্রমণ করতে এবং এক গুচ্ছ আনন্দময় স্মৃতি নিয়ে ফিরে আসতে সাহায্য করবে.

পরিবারের সাথে ভ্রমণ করার সময় যে সতর্কতাগুলি অবলম্বন করতে হবে

পরিবারের সাথে ভ্রমণ করার সময় আপনাকে কীভাবে প্রস্তুত থাকতে হবে তা এখানে দেওয়া হল:
  • ভ্রমণ বিষয়ক পরামর্শ নির্দেশিকা দেখে নিন. এটি ভিন্ন ভিন্ন রাজ্যের ক্ষেত্রে বা বিদেশে ভ্রমণের সময় ভিন্ন হয়.
  • ভ্রমণের আগে পরিবারের সকল সদস্যদের কোভিড-19 টেস্ট করুন.
  • দেখুন অনলাইনে ট্রাভেল ইনস্যুরেন্স. আপনার যদি ইতিমধ্যেই কোনও পলিসি থেকে থাকে তাহলে পলিসিটি রিভিউ করা, কভারেজ এবং সীমাবদ্ধতা সম্পর্কে ধারণা নেওয়া আপনার জন্য ভাল হবে.
  • লোকেশন/ গন্তব্যে খাবার, বাসস্থান এবং পরিবহণের জন্য কী কী বিকল্প রপয়েছে সেগুলি দেখে নিন. চলমান প্যান্ডেমিকের কারণে, ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় সার্ভিস এবং ব্যবসা আংশিক বা সম্পূর্ণভাবে ব্যাহত হতে পারে. সুতরাং পদ্ধতি এবং সার্ভিসের পরিবর্তন সম্পর্কিত তথ্য যাচাই করার পরামর্শ দেওয়া হয়.
  • প্রয়োজন অনুযায়ী ওষুধ সাথে রাখুন.
  • পিক সিজনে কোনও স্থানে ভ্রমণ না করাই ভাল.
  • পাবলিক ট্রান্সপোর্ট ব্যবহার করলে বাধ্যতামূলক সতর্কতা অবলম্বন করুন যেমন মাস্ক পরা, নির্দিষ্ট সময় পর পর অ্যালকোহল-যুক্ত স্যানিটাইজার ব্যবহার করা, হাত ধোয়া ইত্যাদি.
  • আপাতত, যে কোনও কনসার্টে না যাওয়া এবং বায়ুচলাচল করে না এমন আবদ্ধ জায়গা থেকে দূরে থাকাই ভালো.
  • থাকার জন্য এমন একটি জায়গা বুক করুন যেখানে সতর্কতা মেনে চলা হয়. কর্মচারীরা মাস্ক পরেন. আপনি যে রুমে থাকবেন সেই রুমের চাবি, রিমোট কন্ট্রোল, দরজার হাতল ইত্যাদি সহ যে সারফেস সবচেয়ে বেশি স্পর্শ করা হয় সেগুলি জীবাণুমুক্ত করে নিন.
  • একটি ট্রাভেল সেফটি কিট তৈরি করুন. এর মধ্যে হ্যান্ড স্যানিটাইজার, স্পেয়ার মাস্ক, ডিসইনফেক্টেন্ট ব্যাগ এবং আরও অনেক কিছু রাখুন.
মনে রাখবেন: অনুগ্রহ করে নিরাপদ এবং ঝঞ্ঝাট-মুক্ত যাত্রার জন্য গন্তব্যের ট্রাভেল গাইডলাইন দেখুন.

সংক্ষেপে বলা যায়

ফিরে আসার পরে, আপনি এবং যারা আপনার সাথে ভ্রমণ করেছেন তারা সকলেই অবশ্যই স্থানীয় কর্তৃপক্ষ/সরকার দ্বারা নির্দেশিত দিনের জন্য সেলফ-কোয়ারেন্টাইনে থাকবেন. যে কোনও লক্ষণ দেখা দিলেই কোভিড-19 টেস্ট করুন. আসুন, আমরা গুরুত্বের সাথে আমাদের দায়িত্ব পালন করি. আমরা অস্বীকার করতে পারি না যে চলমান প্যান্ডেমিকের কারণে ভ্রমণের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে. সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ এবং ভ্যাক্সিনেশানের কারণে ধীরে ধীরে ভ্রমণের পরিস্থিতি আবার তৈরি হচ্ছে. আপনি নিতে পারেন বিশেষ ভাবে কাস্টমাইজ করা প্রবীণ নাগরিকদের জন্য ট্রাভেল ইনস্যুরেন্স. সঠিক পদক্ষেপ গ্রহণ করুন এবং দুশ্চিন্তা পেছনে ফেলে যাত্রা শুরু করুন. বিচক্ষণতার সাথে নিরাপদে ভ্রমণ করুন!  

এই প্রবন্ধটি কি সহায়ক ছিল? একে রেটিং দিন

গড় রেটিং 2.5 / 5 ভোটের সংখ্যা: 8

এখনও পর্যন্ত কোনও ভোট নেই ! প্রথম ব্যক্তি হিসেবে এই পোস্টে রেটিং দিন.

এই প্রবন্ধটি পছন্দ?? আপনার বন্ধুদের সাথে এটি শেয়ার করুন!

আপনার ভাবনা শেয়ার করুন. নীচে একটি কমেন্ট লিখুন!

একটি উত্তর দিন

আপনার ইমেল অ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না. সমস্ত ক্ষেত্র প্রয়োজনীয়